গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ হওয়ার কারণ ও সতর্কতা

অভিজ্ঞতার অভাবে অথবা সঠিক ভাবে না জানার জন্য আপনি আপনার ওয়েবসাইটটি হারাতে পারেন। গুগল আপনার ওয়েব সাইটটি বন্ধ করে দিতে পারে আপনার ছোট ছোট কিছু ভুলের জন্য। গুগল এডসেন্স পাওয়াটায় বড় বিষয় নয়। তা সঠিকভাবে পরিচালনা করাও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। এজন্য জানতে হবে গুগল এডসেন্সের নীতিমালা সমূহ। সেগুলো কি কি নির্দেশ করে তা জানা জরুরি। তাই গুগলের নীতিমালা সমূহ নিয়েই আজকের আলোচনা।

গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ হওয়ার কারণ ও সতর্কতা
গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ হওয়ার কারণ ও সতর্কতা

গুগল অ্যাডসেন্স অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। একটি ওয়েবসাইটে ইনকাম করার জন্য প্রত্যেকেই এই এডসেন্স টা পাওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠেন। অনেক কষ্টের পর অবশেষে তা পেয়েও যায়। কিন্তু এটি পাওয়ার পরেই কি ইনকাম হতে শুরু করে দিবে? না আসলে তা নয়। একটি ওয়েবসাইটে গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার পর তা আবার বন্ধও হয়ে যেতে পারে।


কারণ গুগল অ্যাডসেন্স এর বেশ কিছু নীতিমালা আছে। যা অনেকেই অবগত নন। ফলে যখন তখন এটি বন্ধ হয়ে যেতে পারে। তাহলে করণীয় কি? কেন এটি বন্ধ হয়ে যায়? কোন বিষয় গুলো এর জন্য দায়ী? আজ এমন কিছু বিষয় নিয়েই হাজির হয়েছি আপনাদের কাছে।


গুগল অ্যাডসেন্স কি?

গুগল অ্যাডসেন্স বলতে গুগলের একটি অ্যাডভার্টাইজমেন্ট বা বিজ্ঞাপন প্রকাশের মাধ্যমকে বোঝায়। একটি ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেলে গুগল অ্যাডসেন্সের মাধ্যমে এড দেখে টাকা ইনকাম করা হয়। অর্থাৎ গুগল অ্যাডসেন্স বলতে গুগলের একটি সার্ভিস।


গুগল অ্যাডসেন্স বন্ধ হওয়া কারণ কি?

সমস্ত ওয়েবসাইট বা ইউটিউবারকে গুগল প্রকাশক নীতি মেনে চলতে হয়। গুগলের অনুমতি ছাড়া এই নীতিগুলি কেউ অমান্য বা মেনে চলতে ব্যর্থ হলে গুগল সাইটে বিজ্ঞাপন দেয়া বন্ধ করে দেয় অথবা অ্যাকাউন্টকে যেকোনো সময় নিষ্ক্রিয় করে দিতে পারে। আর যদি একবার কোনো অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয় তহলে সেই অ্যাকাউন্ট আর কখনো গুগল অ্যাডসেন্স ফেরত দেয় না।


অনেক ওয়েবসাইট প্রকাশকই জানেন না যে গুগল অ্যাডসেন্সের নীতিমালাগুলো যে কোনো সময়ই পরিবর্তন হতে পারে। তাই অনেক সময় তারা এই নীতিমালাগুলো নিয়মিত চেক করেন না।


এতেও সমস্যাগুলো হয়ে থাকে। এজন্য অনুগ্রহ করে আপডেটের জন্য এই নীতিমালাগুলো নিয়মিতই চেক করা উচিত।


গুগল অ্যাডসেন্স বন্ধ হওয়ার কারণ -

১. অবৈধভাবে বিজ্ঞাপনে ক্লিক

গুগল নীতিমালায় বলা আছে প্রকাশকরা তাদের নিজস্ব বিজ্ঞাপনে ক্লিক করতে পারবে না। কৃত্রিমভাবে ক্লিকগুলিকে বাড়ানোর জন্য কোনও উপায় ব্যবহার করা যাবে না। গুগল বিজ্ঞাপনগুলিতে পাঠকরা তাদের আগ্রহ থেকে ক্লিক করবে।


এর বাইরে কৃত্রিমভাবে ক্লিক বা ইমপ্রেশন তৈরি করা এমন পদ্ধতিকে গুগলে কঠোরভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।


২. কোনো কিছুর প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভিউ বাড়ানো

কোনো রকম প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রকাশকরা অন্যদের দ্বারা তাদের বিজ্ঞাপনে ক্লিক করতে বা দেখতে অথবা ভিউ বাড়ানোর জন্য কোনো রকম প্রতারণামূলক পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারবে না। যেমন; বিজ্ঞাপনগুলিতে ক্লিক করতে বলা বা সমর্থন করার কথা বলা অথবা বিভিন্ন লিঙ্কগুলিতে যাওয়ার কথা বলে বিজ্ঞাপনগুলিতে ক্লিক করতে উৎসাহিত করতে গুগল নিষিদ্ধ করেছে।


৩. ট্রাফিক

গুগল বিজ্ঞাপনগুলিতে নির্দিষ্ট স্থান থেকে ট্র্যাফিক নিয়ে ওয়েবসাইটে স্থাপন করা যাবে না। যেমন; প্রকাশকরা টাকার মাধ্যমে ক্লিক এমন বিষয়ে অংশগ্রহণ করা যাবে না, কোনো সফ্টওয়্যার এর ফলে অবাঞ্ছিত ইমেল পাঠানোর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা এমন কাজ করা যাবে না।


এক্ষেত্রে অনলাইন বিজ্ঞাপন ব্যবহারকারীদের গুগলের সকল নীতিমালা মেনে চলছে এমন বিষয় অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে। যেমন;


ক. তৃতীয় পক্ষের পরিষেবাগুলি ব্যবহার করার মাধ্যমে ক্লিক বা ইম্প্রেশন তৈরি করা।


খ. তৃতীয় পক্ষের ওয়েবসাইটের অযাচিত সকল ইমেল এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রচার করা।


গ. টুলবারগুলির মতো সফ্টওয়্যার অ্যাপ্লিকেশনগুলির ক্রিয়াকলাপের ফলস্বরূপ গুগল বিজ্ঞাপন অনুসন্ধান করা বা ফলাফলগুলি প্রদর্শন করা।


এই কাজগুলো কোনো ওয়েবসাইট যদি করে তবে গুগল তাদের এডসেন্স বন্ধ করে দিতে পারে।


৪. বিজ্ঞাপন বসানো

গুগল অ্যাডসেন্স কোড পপ-আপ, ইমেল বা সফ্টওয়্যারের মতো বিভিন্ন জায়গায় স্থাপন করতে নিষেধ করেছে। এক্ষেত্রে প্রকাশকদের অবশ্যই ব্যবহার করা প্রতিটি পণ্যের জন্য নীতি মেনে চলতে হবে।


৫. সাইটের আচরণ

বিজ্ঞাপন দেখানো সাইটগুলি ব্যবহারকারীদের সঠিভাবে পরিলিচালনা করা উচিত। এতে সাইটগুলি ব্যবহারকারীদের অবাঞ্ছিত ওয়েবসাইটে পুনঃনির্দেশ করতে পারে না, ডাউনলোড শুরু করতে পারে, ম্যালওয়্যার অন্তর্ভুক্ত করতে পারে বা পপ-আপ বা পপ-আন্ডার ধারণ করতে পারে যা সাইট সঠিক ভাবে পরিচালনায় হস্তক্ষেপ করতে পারে।


৬. প্রতারণামূলক সাইট নেভিগেশন

ক্লিক বা ভিউ পেতে যদি প্রকাশক প্রতারণামূলক পদ্ধতি ব্যবহার করে এবং তা দেখে যদি ব্যবহারকারীর এটিকে মেনু, নেভিগেশন বা ডাউনলোড করার লিঙ্কের মতো অন্য কোনও কন্টেন্ট মনে হয় তবে না এই নীতিমালার বিরুদ্ধ।


গুগল নীতিমালা অনুযায়ী বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করার সময় প্রত্যেক প্রকাশক বিজ্ঞাপন প্লেসমেন্ট সংক্রান্ত নীতি মেনে চলার ক্ষেত্রে দায়বদ্ধ থাকবে। যেমন;


ক. কন্টেন্ট স্ট্রিম বা ডাউনলোড করার মিথ্যা প্রদর্শন।


খ. অযাচিত কন্টেন্টের সাথে লিঙ্ক করা।


গ. অপ্রাসঙ্গিক বা বিভ্রান্তিকর ওয়েব পৃষ্ঠায় ব্যবহারকারীকে পরিচালনা করা।


ঘ. ভুল সাইট নেভিগেশন তৈরি করা। ইত্যাদি কাজগুলো প্রতারণামূলক সাইট নেভিগেশনের অন্তর্ভুক্ত।


সুতরাং গুগল অ্যাডসেন্সের নীতিমালা অনুযায়ী চললে আপনার ওয়েবসাইটটির ঝুঁকি কম থাকবে। সেক্ষেত্রে আপনার ইনকামটা ধীর গতিতে হলেও তা হারানোর ভয় থাকবে কম।


আজ এই পর্যন্তই। আবারও এমন গুরুত্বপূর্ণ কোনো বিষয় নিয়ে হাজির হবো আপনাদের কাছে। সেই পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। ধন্যবাদ।


আরও পড়ুনঃ গুগল অ্যানালিটিক্স কি? এর কাজ এবং সুবিধা ও অসুবিধা সম্পর্কে জানুন