তথ্য ও প্রযুক্তির এক কর্মবীর স্টিভ পল জবস (Steven Paul Jobs)

তথ্য ও প্রযুক্তির এই যুগে এক মহাবীরের নাম স্টিভ জবস, তার পুরো নাম স্টিভেন পল জবস। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সান ফ্রান্সিসকোতে জন্ম গ্রহন করেন ১৯৫৫ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি মাসে।

তথ্য ও প্রযুক্তির এক কর্মবীর স্টিভ পল জবস (Steven Paul Jobs)
তথ্য ও প্রযুক্তির এক কর্মবীর স্টিভ পল জবস (Steven Paul Jobs)

জবসকে দত্তক নেয় পল ও ক্লারা নামের এক দম্পতি এবং তার নাম দেয় স্টিভেন পল জবস। অন্যদিকে জবস এর প্রকৃত পিতামাতার নাম হচ্ছে আব্দুল্লাহ ফাতাহ জান্দালি এবং জোয়ান ক্যারোল।


জবসের পিতা সিরিয়া থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন। স্টিভ জবসের বোন মোনা সিম্পসন ছিলেন একজন সাহিত্যিক।


শিক্ষা জীবন

স্টিভ জবস কুপারটিনো হাই স্কুলে এবং হোমস্টিভ হাই স্কুলে পড়াশোনা করতেন। ১৯৭২ সালে জবস হাই স্কুলের পড়াশোনা শেষ করেন। আরো পড়াশোনার জন্য তিনি রীড কলেজ এ ভর্তি হন। কিন্তু রীড কলেজ থেকে ডিগ্রি অর্জন করতে ব্যার্থ হন।


এছাড়া জবস জীবনের কোন এক সময় ক্যালিগ্রাফীসহ আরো কিছু বিষয়ে শিক্ষা গ্রহণ করেন। জবস প্রায়ই হিউলেড প্যাকার্ড কোম্পানির লেকচার গুলোতে অংশগ্রহন করতেন। ১৯৭৩ সালের শেষ দিকে ক্যালিফোর্নিয়ার লস গ্যাটোসে অ্যাটারি ইনকর্পোরেটেডে কর্মী হিসাবে যোগ দেন জবস।


স্টিভ জবস ও ভারত ভ্রমণ

১৯৭৪ সালে জবস ভারত ভ্রমণে আসেন এবং তার রীড কলেজের বন্ধু ড্যানিয়েল কোটকেকে সাথে নেন। ভারতে জবস বাস ভ্রমণের এক চমৎপ্রদ অভিজ্ঞতা লাভ করেন কিন্তু জবস মাত্র সাত মাস ভারতে অবস্থান করেন।


ভারতে জবসের বেশ কিছু পরিবর্তন ঘটে এখানে তিনি বৌদ্ধ ধর্ম গ্রহণ করেন। জবস মাথা মুন্ডন করে এতিহ্যবাহী ভারতীয় পোশাকে দেশে ফিরে যান। স্টিভ জবস অ্যাটারিতে ফিরে আসেন এবং আর্কেড ভিডিও গেম ব্রেক আউটের জন্য সার্কিট বোর্ড তৈরী করার জন্য নিয়োগ লাভ করেন।


অ্যাটারি জবসকে প্রত্যেক চিপের জন্য $১০০ ডলার দিতে রাজি ছিল। জবসের সার্কিট বোর্ড ডিজাইনে বিশেষ জ্ঞান ছিল। ১৯৯৪ ডালে জবস এক সাক্ষাৎকারে সাংবাদিকদের বলেন ব্লু বক্স কিভাবে কাজ করে তা বুঝতে তাদের ছয় মাস সময় লেগেছিল।


অ্যাপেল ত্যাগ ও নেক্সট ইনকর্পোরেটেড

১৯৭৬ সালে জবস এবং ওজানিয়াক নিজেদের ব্যবসা শুরু করেন। তারা তাদের কোম্পানির নাম দেন অ্যাপল কম্পিউটার কোম্পানি। সার্কিট বোর্ড বিক্রয়ের মাধ্যমে জবস এই কোম্পানি চালু করেন। এক সময় জবস অ্যাপেল থেকে পদত্যাগ করেন।


১৯৮৫ সালে ৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলারে জবস প্রতিষ্ঠা করেন নেক্সট ইনকর্পোরেটেড। ১৯৯০ সালে দ্বিতীয় প্রজন্মের নেক্সট কিউবও প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেন এবং সাংবাদিকদের বলেন ইন্টারপার্সোনাল কম্পিউটার মানুষের যোগাযোগ এবং দলীয় কাজকর্মে বিপ্লব নিয়ে আসবে।


১৯৯৬ সালের শেষ দিকে অ্যাপেল ফিরে আসেন জবস এবং প্রধান নির্বাহী গিল আমেলিওকে উচ্ছেদ করা হলে জবস কার্যত প্রধান হিসাবে দায়িত্ব নেন।


অ্যাপল-১ কম্পিউটার

১৯৭৬ সালে ওজনিয়াক একক প্রচেষ্টায় অ্যাপল-১ কম্পিউটার আবিষ্কার করেন। ওজনিয়াক কম্পিউটারটি জবসকে দেখালে জবস সেটাকে বিক্রি করতে বলে। তারপর তারা কম্পিউটারটি বিক্রি করার জন্য রোনাল্ড ওয়েনকে সাথে নিয়ে জবসের গ্যারেজে অ্যাপল কম্পিউটার প্রতিষ্টা করেন।


ওয়েন অল্প কিছু দিন জবস এবং ওজনিয়াক এর সাথে ছিলেন তারপর ওয়েন অপর দুই সঙ্গীকে ছেড়ে চলে যান। তবুও ওয়েন ছিলেন একজন অ্যাপলের প্রাথমিক সহ প্রতিষ্ঠাতা। ইন্টেলের তৎকালীন অর্ধ অবসরপ্রাপ্ত পণ্য বিপণন ব্যবস্হাপক মাইক মার্ককুলা তাদেরকে অর্থ সহযোগিতা দিয়ে সহযোগিতা করেছিলেন।


১৯৭৮ সালে অ্যাপল মাইক স্কটকে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসাবে সুপারিশ করেন। ১৯৮৩ সালে জবস পেপসি কোলার জন স্কালীকে অ্যাপেলের প্রধান নির্বাহী হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণের জন্য লোভ দেখান। জবস তাকে বলেছিলেন, “তুমি কি তোমার জীবনের বাকিটা সময় চিনির শরবত বিক্রয় করে কাটাতে চাও নাকি আমার সাথে এসে পৃথিবীকে বদলে দিতে চাও।”


ম্যাকিন্টশ উদ্ভাবন

১৯৮০ সালের দিকে স্টিভ জবস তাদের মধ্যে অন্যতম একজন ছিলেন, যারা জেরক্স পার্কের মাউস দ্বারা নিয়ন্ত্রিত গ্রাফিক্যাল ইউজার ইন্টারফেসের বাণিজ্যিক সম্ভাবনা দেখেছিলেন, যা জবস অ্যাপল লিসা উদ্ভাবনে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছিলেন। এক বছর পরে অ্যাপেলের কর্মচারী জেফ রাস্কিন ম্যাকিন্টশ উদ্ভাবন করেন।


কিছু সময় পরে অ্যাপল ১৯৮৪ শিরোনামে একটি সুপার বোল টেলিভিশন বিজ্ঞাপন প্রচার করে। ১৯৮৪ সালে ২৪ জানুয়ারি অ্যাপলের অংশীজনের সার্বিক সভায় স্টিভ জবস ব্যাপকভাবে উৎসাহী দর্শকদের ম্যাকিন্টশ উন্মোচিত করেন।


মেজাজী স্টিভ জবস

স্টিভ জবস একজন প্ররোচনামূলক এবং সহজাত দক্ষতা সম্পন্ন পরিচালক হওয়ার পরে ও সে সময়ের তার কিছু কর্মাচারী তাকে মেজাজী হিসাবে দেখতেন। বাজারে সুবিধা করতে না পারায় জবসের সাথে স্কালীর সাথে কাজের সম্পর্ক খারাপ হয়ে যায় যা তাদের মাঝে ক্ষমতার দ্বন্দ্বে নিয়ে পৌঁছায়।


জবস মধ্যরাতে ও সভা করেছেন এবং লম্বা ফ্যাক্স পাঠিয়ে সকাল ৭ টায় নতুন সভা ডেকেছিলেন। স্কালী কোনভাবে বুঝতে পারেন যে, স্টিভ জবস পরিচালনা পরিষদের সদস্যদের নিয়ে একটা অভ্যত্থান সৃষ্টি করার চেষ্টা করছেন।


এবং মে ২৪, ১৯৮৪ তারিখে সমস্যা সমাধানের জন্য তিনি পরিচালনা পরিষদের সভা ডাকেন পরবর্তীতে অ্যাপলের পরিচালনা পরিষদ স্কালীর পক্ষে অবস্থান করে এছাড়া স্টিভ জবসকে ম্যাকিন্টশ বিভাগের প্রধানের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়।


অ্যাপল থেকে পদত্যাগ তার জীবনের শ্রেষ্ঠ ঘটনা

জবস ধীরে ধীরে অফিসে আসা বন্ধ করেন। মহাকাশচারী হিসাবে স্পেস শাটলে ওড়ার ব্যার্থ প্রয়াস এবং সোভিয়েত ইউনিয়নে একটি নতুন কম্পিউটার কোম্পানি চালু করার কথা বিবেচনা করে জবস অ্যাপেল থেকে পদত্যাগ করেন।


স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে তিনি তার বক্তব্যে বলেন যে অ্যাপল থেকে পদত্যাগ তার জীবনের শ্রেষ্ঠ ঘটনা। জবস বলেন সফল হওয়ার ভার, নতুন করে শুরু করার আলোয় কেটে গিয়েছিল, সবকিছু সম্পর্কে কম নিশ্চিত ছিলাম।


এটি আমাকে আমার জীবনের সবচেয়ে সৃজনশীল অংশে প্রবেশ করতে সহযোগিতা করে। জবস আরো বলেন আমি মোটামুটি নিশ্চিত এর কিছুই ঘটত না যদি না আামকে অ্যাপল থেকে অব্যাহতি দেওয়া না হতো। অব্যাহতি দেওয়ার ঘটনাটি ছিল একটি ভয়াবহ ঔষধ যা রোগীর বিশেষ প্রয়োজন।


স্টিভ জবস অ্যাপল থেকে সরে আসার পরে ১৯৮৫ সালে প্রতিষ্ঠা করেন নেক্সট ইনকর্পোরেটেড কিন্তু বাজারে এর দাম বেশি হওয়ার কারণে সুবিধা করতে পারে নি। তারপর ১৯৯০ সালে দ্বিতীয় প্রজন্মের নেক্সটকিউব ও উন্মোচিত করে জবস, যাকে প্রথম ইন্টারপার্সোনাল কম্পিউটার হিসাবে আখ্যা দেওয়া হয়ে থাকে।


নেক্সটকিউবের মাধ্যমে ই-মেইল এর সাথে প্রথমবারের মতো ভয়েস, চিত্র, গ্রাফিক্স এবং ভিডিও চিত্র আদান প্রদানের সুবিধা চালু হয়।


সম্মাননা

স্টিভ জবস ১৯৮৫ সালে ন্যাশনাল মেডেল অব টেকনোলজি লাভ করেন। এছাড়া ২০১১ সালে পার্সন অফ দ্য ইয়ার হিসেবে মনোনীত হন।


স্টিভ জবস অগ্নাশয়ের ক্যান্সারে ভুগে ২০১১ সালের ৫ অক্টোবর মৃত্যুবরণ করেন।


আরও পড়ুনঃ জুলভার্ন: একজন দুনিয়া কাঁপানো বিজ্ঞানের ভবিষ্যৎ দ্রষ্টা